Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
 #  আমিরাতের শ্রমবাজার খুলে দেয়ার ইঙ্গিত #  নবীগঞ্জে এমপি মিলাদ গাজীকে সংবর্ধনা #  বরগুনায় র‌্যাবের অভিযানে কারেন্ট জাল জব্দ #  বরগুনায় অস্ত্রসহ ১৪ মামলার আসামি গ্রেফতার #  রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে কাজ করছে চীন : রাষ্ট্রদূত #  হোলে আর্টিজান মামলার রায় ২৭ নভেম্বর #  নবীনগরে লতিফ এমপি’র ১৮ তম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত #  বিএনপির চিঠি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে #  ৬০ বছরই থাকছে মুক্তিযোদ্ধাদের অবসরের বয়স

আব্দুল মজিদ খান এমপি গোল্ডকাপ টুর্নামেন্টে ফাইভ এন্ড সিক্স চ্যাম্পিয়ন

Baniachong Pic 1.11.2019

জীবন আহমেদ লিটন, বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) ॥ এ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান এমপি গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় ফাইভ এন্ড সিক্স একাদশ চ্যাম্পিয়ান হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে। এতে রানার্সআপ হয়েছে রোজেস এলিভেন একাদশ। গতকাল শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩ টায় বানিয়াচং শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে (সাবেক এড়ারিয়া মাঠ) খেলাটি অনুষ্ঠিত হয়।
খেলা শেষে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মামুন খন্দকারের সভাপতিত্বে ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার জয়েন্ট সেক্রটারী সাহিবুর রহমানের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে টুর্নামেন্টের প্রধান পৃষ্ঠপোষক হবিগঞ্জ-২ বানিয়াচং আজমিরীগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান এমপি বলেন, ফুটবল আমাদের দেশের একটি জনপ্রিয় খেলা। খেলাধুলা করলে মানুষের মধ্যে সম্পৃতির বন্ধন সৃষ্টি হয়।

খেলায় জয়পরাজয় বড় কথা নয়। খেলায় অংশ গ্রহন করাই একটি মহত্বের নিদর্শন। বানিয়াচংবাসী খেলাপ্রেমী মানুষ। ভাল টুর্নামেন্ট হলেই হাজার হাজার দর্শক রোদ-বৃষ্টি উপেক্ষা করে মাঠে খেলা দেখতে চলে আসেন। কিন্তুু খেলাধুলা করতে গিয়ে আমরা যেন আঞ্চলিকতার বিরোধ সৃষ্টি না করি সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

উপজেলার ১৫ টি ইউনিয়নের মানুষ আমরা ঐতিহাসিক বানিয়াচং উপজেলার মানুষ। এক এলাকার মানুষকে অপর এলাকার মানুষ প্রতিপক্ষ ভাবলে খেলার যে আসল বিনোদন সেটি বিনষ্ট হয়। বানিয়াচং উপজেলাবাসীর বিনোদনের জন্য আমি জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মাধ্যমে বানিয়াচং এড়ালিয়া মাঠে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম তৈরী করেছি। মনে রাখতে হবে এ স্টেডিয়ামকে উন্নত করতে হলে একে অপরের হিংসাত্বক মনোভাব পরিহার করতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে নবাগত জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান বলেন, আমি নিজেই একজন ফুটবল খেলোয়াড় ছিলাম। এ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান এমপি মহোদয়ের আমন্ত্রনে মহাগ্রাম বানিয়াচং আসার সুযোগ পেয়েছি। এখানে না আসলে জানতেই পারতামনা অত্রাঞ্চলের মানুষ এতোটা ফুটবলকে ভালবাসেন।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যাহ পিপিএম বিপিএম বলেন আইভেরিকোষ্টে সেরা ফুটবল খেলোয়াড় দ্রগবা তাঁর দেশের গৃহযুদ্ধ নিমুল করে ফেলেছে। একজন ভালো খেলোয়াড় একটি এলাকাকে বদলে দিতে পারে। তিনি বলেন খেলাধুলা মানুষের বিনোদনের পাশাপাশি মাদক, জুয়া, ইভটিজিংসহ নানা অপকর্ম থেকে বিরত রাখে। আব্দুল মজিদ খান এমপি মহোদয় একজন খেলাপ্রেমী মানুষ। তার পৃষ্ঠপোষকতায় শান্তিপূর্নভাবে একটি বড় টুর্নামেন্ট শেষ হওয়ায় তাকে ধন্যবাদ জানাই।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরী, ক্রীড়া সংস্থার সেক্রেটারী বীর মুক্তিযোদ্ধা আমির হোসেন মাস্টার, বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্জ রঞ্জন কুমার সামান্ত প্রমুখ।
উপস্থিত ছিলেন, টুর্নামেন্টের আহ্বায়ক এনামুল মুহিত খান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারুক আমিন, জেলা পরিষদ সদস্য রৌশনারা ভূঁইয়া লাকী, ইউপি চেয়ারম্যান রেখাছ মিয়া, ওয়ারিশ উদ্দিন খান, ফাইভ এন্ড সিক্স একাদশের টিম ম্যানেজার মোত্তাকিন বিশ^াস, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া লিলু শাহজাহান মিয়া,আওয়ামীলীগ নেতা নজরুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা ছায়েব আলী, বাবুল মিয়া, শাহজাহান মিয়া, আজমল হোসেন খান, ছোবেদ আলী, এ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান খান তুহিন, জসিম উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি এজেড এম উজ্জল, সেক্রেটারী রফিকুল আলম চৌধুরী রিপন, যুবলীগ নেতা মাজহারুল ইসলাম অপু, ইমদাদ মিয়া, ৩ নং ইউনিয়ন যুবলীগ সেক্রেটারী রায়হান মিয়া, ওমর শেখ জিতু, প্রমুখ।

উল্লেখ্য বিকাল সাড়ে ৩ টায় খেলা শুরু হয়ে রেফারীর শেষ বাঁশি বাজা পর্যন্ত কোন পক্ষই গোল দিতে পারেনি। পরবর্তীতে উভয় দল সরাসরি ৯ টি করে ট্রাইবেকারে ফলাফল ড্র হওয়ায় বিপাকে পরে কর্তৃপক্ষ। পরে উভয় দলকে একটি করে শুট করার সিদ্ধান্ত দেন আয়োজক কমিটি। এতে ফাইভ এন্ড সিক্স টিম সম্মত হলেও অন্ধকার হওয়ার অজুহাতে রোজেস এলিভেন শুট দিতে রাজী না হলে চ্যাম্পিয়ান দল নির্বাচন করতে কঠিন সমিকরনে পড়েন কর্তৃপক্ষ। অবশেষে সন্ধার পর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে কমিটি উভয় দলের সবকটি খেলা সুচারুরূপে পর্যালোচনা করেন।

এতে দেখা যায় রোজেস এলিভেন সবকটি খেলায় ৮ টি ও ফাইভ এন্ড সিক্স ১৬ টি গোল করে। এরপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন এর আইনানুযায়ী খেলার সর্ব্বোচ্চ গোল ও অন্যান্য পারফমেন্স বিবিচনায় নিয়ে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান, সহসভাপতি পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যাহসহ সকলের সম্মতিক্রমে ফাইভ এন্ড সিক্স একাদশকে চ্যাম্পিয়ান ঘোষণা করেন টুর্নামেন্টের প্রধান পৃষ্ঠপোষক এ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান এমপি।

Print Friendly, PDF & Email