#  বানিয়াচঙ্গে প্রতিবন্ধীর ভাতা ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ প্রমানিত ॥ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে ইউপি সদস্য ও সমাজকর্মীর বিরুদ্ধে #  নবীনগরের প্রতিবন্ধী জিতেন্দ্র সরকার সমাজের দয়ালু মানুষের কাছে সহযোগিতা চেয়েছেন #  ৬ ডিসেম্বর হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ মুক্ত দিবস ১৯৭১ সালে এইদিনে নবীগঞ্জ মুক্ত হয়েছিল #  নবীগঞ্জে ২৮তম জাতীয় প্রতিবন্ধি দিবস পালিত #  ঘুষের টাকাসহ সাব-রেজিস্ট্রার আটক #  প্রতি উপজেলায় প্রতিবন্ধী সেবা কেন্দ্র চালু হবে : প্রধানমন্ত্রী #  খালেদা জিয়ার জামিন দাবিতে বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের এজলাসে অবস্থান #  বানিয়াচঙ্গে প্রতিবন্ধীর ভাতা ছিনিয়ে নিলেন সমাজসেবা কর্মকর্তা ও ইউপি সদস্য #  রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে আলোচনা হবে : সেনাপ্রধান #  কেজিতে ৯ টাকা কমানো হয়েছে সারের দাম : কৃষিমন্ত্রী #  নবীনগরে চলন্ত ট্র্যাক্টর থেকে পড়ে স্কুল ছাত্রের মৃত্যু #  মেলান্দহে টিকিট কালো বাজারির দায়ে দুই ভাইর জরিমানা #  বিকালে আ’লীগের জাতীয় কমিটির সভা #  শিক্ষক লাঞ্চনাকারীদের গ্রেফতারের দাবীতে বানিয়াচং জনাব আলী কলেজ উত্তাল

ক্রেতা নেই‌, ঘু‌মি‌য়ে সময় কাটছে পেঁয়াজ ব্যবসা‌য়ীদের

piaz

বাংলা কন্ঠ ডেস্কঃ পেঁয়াজের দাম নিয়ে দেশে এখন চল‌ছে আশ্বাস আর প্রতিশ্রুতির নানা ফুলঝুড়ি। মাঝখা‌নে প্র‌তি‌কে‌জি দে‌শি পেয়া‌জের দাম কমে ১৮০ থে‌কে ৯০ টাক‌ায় এলেও এখন আবার অ‌তিক্রম ক‌রে‌ছে ডাবল সেঞ্চু‌রি। কবে কমবে সেটির নিশ্চয়তা কেউ দিতে পারছে না।

সংশ্লিষ্টরা এখন বলছেন, আমদানিকৃত বড় চালান দেশে পৌঁছালে পেঁয়াজের দাম কমে যাবে। ব্যবসায়ীরা বলছেন, দেশের বাজারে যে পরিমাণ পেঁয়াজের চাহিদা রয়েছে সে পরিমাণ আমদানি নেই। এছাড়া অন্যান্য বছর এই সময়ে নতুন পেঁয়াজ বাজারে আস‌তো। চলতি বছর বৃষ্টি ও ফলন ভা‌লো না হওয়ায় নতুন পেঁয়াজ বাজারে না আসায় পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না।

এ‌দি‌কে পেঁয়াজের দাম নাগালের বাইরে হওয়ায় ভোক্তারাও পেঁয়াজের ব্যবহার অনেকাংশে কমিয়ে দিয়েছেন। সেই প্রভাব পড়েছে খুচরা ও পাইকারি বাজারে। মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে দেখা যায় বড় ও ছোট পাইকাররা অলস সময় পার করছেন। দোকানে ক্রেতাদের আনাগোনা না থাকায় অনেকে ঘুমিয়ে পড়েছেন। ক্রেতাশূন্য পেঁয়াজের বাজারে অনেকটাই হতাশ কারওয়ান বাজারের পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা।

কারওয়ান বাজা‌রের ‌বিল্লা‌মিল্লাহ আড়‌তের পেঁয়াজ ব্যবসা‌য়ি মো. সে‌লিম ব‌লেন, আগে আমরা প্রতি বস্তা পেঁয়াজ ১৭০০ থে‌কে ২২০০ টাকায় বিক্রি করে প্র‌তি বস্তায় ১৫০ থে‌কে ২০০টাকা লাভ করতে পারতাম। একই পেঁয়াজ আমাদের এখন ১৬ থেকে ১৭ হাজার টাকায় কিনতে হচ্ছে। কালকে চার বস্তা পেঁয়াজ নি‌য়েছিলাম এখনও বিক্রি করতে পারিনি। ব‌সে আ‌ছি।

এই ব্যবসায়ী বলেন, এমনও সময় গেছে আমরা ৫০ থেকে ৮০ বস্তা পর্যন্ত পেঁয়াজ একই দিনে বিক্রি করেছি। পেঁয়াজের দাম বাড়‌তি হওয়ায় লোকজন আগের মতো পেঁয়াজ কিনতে আসেন না। বসে থেকে বা কখনো বসে থাকতে থাকতে ঘুমিয়ে সময় কাটাই।

আরেক পেঁয়াজ ব্যবসায়ী খ‌লিল বলেন, পেঁয়াজের দাম যখন কম ছিল প্রতিদিন আমরা আড়াই থেকে তিন হাজার টাকা পর্যন্ত আয় করতাম। এখন ১ হাজার টাকা আয় করাও কঠিন হয়ে পড়েছে। তি‌নি ব‌লেন, মাঝখানে ১৭ হাজার টাকা লোকসান দিয়েছি। বাহির থেকে আমদা‌নি পেঁয়াজ আসছে এমন খবরে আমাদের কাছে যা ছিল- যে যার মতো করে কম দা‌মে বিক্রি করে দিয়েছি। আমার ম‌তো অন্যান্য‌দের অবস্থাও একই। তাতে আমার ১৭ হাজার টাকা লোকসান হয়েছে।

কারওয়ান বাজারে ঘুরে দেখা যায় দেখা যায়, খ‌লি‌লের মতো অন্যান্য পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরাও অলস সময় পার করছেন। কেউ বসে আছেন আর কেউ বা ঘুমিয়ে পড়েছেন দোকানের মধ্যেই।

ব্যবসা‌য়িরা বলছেন, পেঁয়াজের দাম কম হলে অ‌ধিক বি‌ক্রি‌তে তাদের লাভও বেশি হয়। আগে যারা পাঁচ-দশ কেজি পেঁয়াজ কিনতেন তারাএক কেজিও নিতেও চা‌চ্ছেন না।

ব্যবসা‌য়িরা বল‌ছেন, পেয়া‌জের দা‌মে স্থী‌তিশীলতা আসা দরকার। যা‌তে ক্রেতা ব্যবসা‌য়ি উভ‌য়েই উপকৃত হ‌বে পা‌রেন।

Print Friendly, PDF & Email