Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
 #  আমিরাতের শ্রমবাজার খুলে দেয়ার ইঙ্গিত #  নবীগঞ্জে এমপি মিলাদ গাজীকে সংবর্ধনা #  বরগুনায় র‌্যাবের অভিযানে কারেন্ট জাল জব্দ #  বরগুনায় অস্ত্রসহ ১৪ মামলার আসামি গ্রেফতার #  রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে কাজ করছে চীন : রাষ্ট্রদূত #  হোলে আর্টিজান মামলার রায় ২৭ নভেম্বর #  নবীনগরে লতিফ এমপি’র ১৮ তম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত #  বিএনপির চিঠি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে #  ৬০ বছরই থাকছে মুক্তিযোদ্ধাদের অবসরের বয়স

জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষায় বসেছে সাড়ে ২৬ লাখ শিক্ষার্থী

452980_133

বাংলা কন্ঠ ডেস্কঃ সারাদেশে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা শুরু হয়েছে। শনিবার সকাল ১০টায় ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড এবং মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এই পরীক্ষা শুরু হয়েছে। প্রথম দিন জেএসসির বাংলা এবং জেডিসির কোরআন মাজিদ ও তাজবীদ পরীক্ষায় বসেছে শিক্ষার্থীরা। এরমধ্যে প্রথমবারের মতো ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ড পরীক্ষা নিচ্ছে।

আজ শনিবার (২ নভেম্বর) থেকে শুরু হওয়া এই পরীক্ষা চলবে ১১ নভেম্বর পর্যন্ত।

এবার এই দুই পরীক্ষায় সারাদেশে ২ হাজার ৯৮২ কেন্দ্রে অংশ নেবে ২৬ লাখ ৬১ হাজার ৬৮২ শিক্ষার্থী। জেএসসি পরীক্ষার্থী ২২ লাখ ৬০ হাজার ৭১৬ জন। জেডিসি পরীক্ষার্থী ৪ লাখ ৯৬৬ জন। ছাত্র ১২ লাখ ২১ হাজার ৬৯৫ জন এবং ছাত্রী ১৪ লাখ ৩৯ হাজার ৯৮৭ জন। ছাত্রের তুলনায় ছাত্রীর সংখ্যা ২ লাখ ১৮ হাজার ২৯২ জন বেশি।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান ও আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক মু: জিয়াউল হক নয়া দিগন্তকে জানান, পরীক্ষার সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্র এবং প্রশ্নপত্রের জন্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে।

পরীক্ষা প্রতিদিন সকাল ১০টায় শুরু হয়ে বেলা ১টা পর্যন্ত চলবে। প্রথম দিনে সাধারণ বোর্ডে বাংলা প্রথমপত্র এবং মাদরাসা বোর্ডে কুরআন মাজিদ ও তাজবিদ বিষয়ে পরীক্ষা হবে। ইংরেজি ছাড়া সব বিষয়ে সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা হবে। তাদের সাতটি বিষয়ে ৬৫০ নম্বরের পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে।

শারীরিক শিক্ষা ও স্বাস্থ্য, কর্মমুখী শিক্ষা এবং চারু ও কারুকলা বিষয়ে শিক্ষার্থীদের ধারাবাহিক মূল্যায়নের মাধ্যমে প্রাপ্ত নম্বর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রে সরবরাহ করতে হবে। গত বছর থেকে অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার চাপ কমানোর জন্য বিষয় ও নম্বর পুনঃবণ্টনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সে কারণে বাংলা ও ইংরেজির দ্বিতীয়পত্র বাদ দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা এবং কৃষি শিক্ষা ও গার্হস্থ্য বিজ্ঞান বিষয় পাঠ্যক্রম বিজ্ঞান বিষয়ের সাথে একীভূত করা হয়েছে।

পরীক্ষা ও প্রশ্নে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং পরীক্ষার পরিবেশ সুন্দর ও শান্তিপর্ণূ রাখতে কেন্দ্রের ২০০ গজের মধ্যে কোনো জটলা করতে দেয়া হবে না। পুলিশকে সে ব্যাপারে নির্দেশনা ও কার্যকর পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে। কেন্দ্রের ২০০ গজের মধ্যে শিক্ষক-কর্মচারী, ছাত্রছাত্রী বা অভিভাবকদের মোবাইল, মোবাইল ফোনের সুবিধাসহ ঘড়ি কলম এবং কোনো ধরনের ইলেকট্র্রনিকস ডিভাইস ব্যবহার নিষিদ্ধ থাকবে।

পরীক্ষা চলাকালে ও এর আগে বা পরে পরীক্ষাসংশ্লিষ্ট নন, এমন কারো কেন্দ্রে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। পরীক্ষা চলাকালে কেন্দ্রে অননুমোদিত ব্যক্তি প্রবেশ করলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এছাড়া বরাবরের মতো পরীক্ষার্থীদের ৩০ মিনিট আগে কেন্দ্রে প্রবেশ বাধ্যতামূলক। তবে অনিবার্য কারণে কোনো পরীক্ষার্থীকে নির্ধারিত সময়ের পরে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দিলে তার বা তাদের নাম, রোল নম্বর, প্রবেশ সময়, দেরির কারণ রেজিস্টারে লিপিবদ্ধ করে ওই দিনই সংশ্লিষ্ট বোর্ডে প্রতিবেদন দিতে হবে।

আন্তঃবোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটি জানায়, সারা দেশে শান্তিপূর্ণ ও নকলমুক্ত পরিবেশে পরীক্ষা গ্রহণের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁস রোধে কোচিং সেন্টার ও ফেসবুক নজরদারিতে থাকবে। জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের ছাড়াও বিভিন্ন পর্যায়ে গোয়েন্দা নজরদারি চলছে এবং প্রয়োজনে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সব ধরনের কোচিং সেন্টার আগামী ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এবারের পরীক্ষায় ২৬ লাখ ৬১ হাজার ৬৮২ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। এর মধ্যে জেএসসিতে ২২ লাখ ৬০ হাজার ৭১৬ জন এবং জেডিসিতে চার লাখ ৯৬৬ জন।

এর মধ্যে নিয়মিত ২০ লাখ ২৭ হাজার ২১৮ জন, অনিয়মিত দুই লাখ ৩৩ হাজার ৩১০ জন। এবারের পরীক্ষায় উভয় স্তরে (সাধারণ ও মাদরাসা) ছাত্রের চেয়ে ছাত্রী সংখ্যা দুই লাখ ১৮ হ্জার ২৯২ জন বেশি। এবার দুই হাজার ৯৮২টি কেন্দ্রে ২৯ হাজার ২৬২টি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা নিম্ন-মাধ্যমিক স্তরের পাবিলক পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীরা একটি সনদ পাবে এবং এ ফলাফলের ভিত্তিতেই পরবর্তী ক্লাসে অর্থাৎ নবম শ্রেণীতে ভর্তির সুযোগ পাবে।

এ বছরও বিদেশের (শুধু মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশে) মোট ৯টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। কেন্দ্রগুলো হচ্ছে- জেদ্দা, রিয়াদ, মদিনা, ত্রিপোলি, দোহা, সাহাম, বাহরাইন, আবুধাবি ও দুবাই। বিদেশে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা হচ্ছে ৪৫৪ জন।

জেএসসির পরীক্ষাসূচি : ২ নভেম্বর আজ অনুষ্ঠিত হচ্ছে বাংলা প্রথম, ৪ নভেম্বর ইংরেজি, ৫ নভেম্বর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, ৬ নভেম্বর ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা,৭ নভেম্বর বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়, ৯ নভেম্বর গণিত, ১১ নভেম্বর বিজ্ঞান বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

জেডিসির পরীক্ষাসূচি : ২ নভেম্বর কুরআন মাজিদ ও তাজবিদ, ৩ নভেম্বর আকাইদ ও ফিকহ, ৪ নভেম্বর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, ৫ নভেম্বর আরবি প্রথমপত্র, ৬ নভেম্বর আরবি দ্বিতীয়পত্র, ৭ নভেম্বর বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়, ৯ নভেম্বর গণিত, ১১ নভেম্বর ইংরেজি, ১২ নভেম্বর বিজ্ঞান, ১৩ নভেম্বর বাংলা বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

Print Friendly, PDF & Email