Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
 #  বিশ্বের সবচেয়ে ‘হ্যান্ডসাম’ হৃতিক রোশন #  স্বর্ণের দাম বাড়ছে ভরিতে ১ হাজার ১৬৬ টাকা #  অতিরিক্ত ডিআইজি হলেন ২০ পুলিশ কর্মকর্তা #  সিপিডি’র ভবনে এডিসের লার্ভা #  মন্ত্রণালয়গুলোকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রকল্প গ্রহণের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর #  বাস-সিএনজি সংঘর্ষে একই পরিবারের ৬ জনসহ নিহত ৮ #  বাবার কিনে দেয়া মোটর সাইকেল কেড়ে নিল ছেলের প্রাণ #  জি এম কাদেরকে বিরোধী দলের নেতা করার দাবি #  তরঙ্গ পত্রিকা পাঠক ফোরামের উদ্যোগে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত #  বিএনপি’র হাত ধরেই ‘জঙ্গিবাদের’ উত্থান : হানিফ

তুরস্কের মসজিদে কোরআন শেখানের অভিনব উদ্যোগ

432178_158

গরমের ছুটি পড়তেই তুরস্কে মসজিদগুলিতে শুরু হয়ে যায় শিশুদের কুরআন শিক্ষার ক্লাস। কিন্তু, মসজিদের সাদা-মাটা ও নিয়ম-শঙ্খৃলগত পরিবেশ শিশুমনে দাগ কাঠতে চায় না। তাই, গরমের ছুটিতে মসজিদে এসে কুরআন শিক্ষার নেয়ার জন্য আগ্রহ ক্রমশ কমছে সেখানকার শিশুদের মধ্যে। শিশুদের অনীহা দেখে অভিভাবকরা বাড়িতেই সন্তানদের কুরআন শিক্ষার দেওয়ার ব্যবস্থা করছেন। শিশুমন থেকে এমন বিরূপ মনোভাব দূর করতে অভিনব উপায় বের করেছেন তুরস্কে এক ইমাম কাদের সেলিকিস।

মসজিদের পরিবেশকে শিশুদের কাছে আকর্ষনীয় করে তুলতে, তাদের জন্য মসজিদ চত্বরে গড়ে তুলেছেন একটি সাজানো-গোছানো খেলার মাঠ। দোলনা, স্লিপ কি না রয়েছে সেই মাঠে। এখন কুরআন শিক্ষার পাশাপাশি এই মাঠেই খেলাধূলা করতে পারে শিশুরা।

তুরস্কের কোকেলি বাসিসকেল জেলার মার্কেজ মসজিদে ১০ বছর ধরে ইমাম পদে রয়েছেন কাদের সেলিকিস। তিনি জানিয়েছেন, গরমের ছুটির পড়ার সঙ্গে সঙ্গে শিশুদের জন্য কুরআন শিক্ষার আয়োজন করা হয় তুরস্কের বিভিন্ন মসজিদে।আগে থেকে স্থানীয় মসজিদগুলোতে সন্তান-সন্ততিদের নাম নথিভূক্ত করে থাকেন অভিভাবকরা। কিন্তু সময় বদলছে। সেই সঙ্গে শিশুদের রুচিও বদছে। বিভিন্ন জায়াগায় অ্যামিউজমেন্ট পার্ক গড়ে ওঠায়, ছুটিতে কুরআন শিক্ষার নেয়া বড়ই রুক্ষ লাগে তাদের। সারাক্ষণ স্কুলের নিয়ম-নীতি মধ্যে থাকার পর লম্বা ছুটি পেয়ে খেলাধূলা করে সারাদিন কাটাতে চায় তারা। তাই তালিকায় নামের সংখ্যা ক্রমশ কমে আসছিল। মসজিদের পরিবেশ ও কুরআন শিক্ষাকে শিশুদের কাছে আকর্ষনীয় করে তুলতে মসজিদের মাঠকে কাজে লাগানো কথা মাথায় আসে।

তিনি আরো বলেন, চিন্তাটি মাথায় আসার পর, মাঠটিকে অ্যামিউজমেন্ট পার্কে আদলে তৈরি করতে আর্থিক সাহায্য সংগ্রহ করা শুরু করি। বহু মহানুভব এই উদ্যোগের কথা শুনে আর্থিক সাহায্যে হাত বাড়িয়ে দেন। সেই অর্থ দিয়ে শিশুদের জন্য মসজিদের মাঠকে বিভিন্ন খেলার সরঞ্জাম দিয়ে সাজিয়ে তোলা হয়েছে। পার্কটি শিশুদের আকর্ষন বাড়িয়েছে। এখন খেলাধূলার পাশাপাশি চলছে কুরআন শিক্ষাও। শিক্ষার্থীদের সংখ্যাও ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রতিবছর গরমের ছুটিতে গড়ে প্রায় ১৫০জন শিশু শিক্ষার্থী এই মসজিদেই কুরআন শিক্ষা নেয়। এবছর রেকর্ড সংখ্যক শিক্ষার্থী কুরআন শিক্ষা নিতে এসছিল। প্রায় ২৫০জন শিক্ষার্থী এখান থেকে কুরআন শিক্ষা নিয়েছে। শুধু কুরআন শিক্ষাই নয়, সেখানে শিশুদের নীতি গল্প বলা হয়, যাতে জীবনে তারা সৎ পথে চলে স্বাবলম্বী হতে পারে। এছাড়া ক্লাসে বিভিন্ন ধরণের ক্যান্ডি বিতরণ করা হয়। মাঠের মধ্যে শিশু জন্য আইিসক্রিম স্টলও রয়েছে।এমন সমস্ত আকর্ষণ পেয়ে কুরআন শিক্ষা এখন শিশুদের কাছে আনন্দের বিষয় হয়ে উঠেছে।

Print Friendly, PDF & Email