#  বানিয়াচঙ্গে প্রতিবন্ধীর ভাতা ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ প্রমানিত ॥ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে ইউপি সদস্য ও সমাজকর্মীর বিরুদ্ধে #  নবীনগরের প্রতিবন্ধী জিতেন্দ্র সরকার সমাজের দয়ালু মানুষের কাছে সহযোগিতা চেয়েছেন #  ৬ ডিসেম্বর হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ মুক্ত দিবস ১৯৭১ সালে এইদিনে নবীগঞ্জ মুক্ত হয়েছিল #  নবীগঞ্জে ২৮তম জাতীয় প্রতিবন্ধি দিবস পালিত #  ঘুষের টাকাসহ সাব-রেজিস্ট্রার আটক #  প্রতি উপজেলায় প্রতিবন্ধী সেবা কেন্দ্র চালু হবে : প্রধানমন্ত্রী #  খালেদা জিয়ার জামিন দাবিতে বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের এজলাসে অবস্থান #  বানিয়াচঙ্গে প্রতিবন্ধীর ভাতা ছিনিয়ে নিলেন সমাজসেবা কর্মকর্তা ও ইউপি সদস্য #  রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে আলোচনা হবে : সেনাপ্রধান #  কেজিতে ৯ টাকা কমানো হয়েছে সারের দাম : কৃষিমন্ত্রী #  নবীনগরে চলন্ত ট্র্যাক্টর থেকে পড়ে স্কুল ছাত্রের মৃত্যু #  মেলান্দহে টিকিট কালো বাজারির দায়ে দুই ভাইর জরিমানা #  বিকালে আ’লীগের জাতীয় কমিটির সভা #  শিক্ষক লাঞ্চনাকারীদের গ্রেফতারের দাবীতে বানিয়াচং জনাব আলী কলেজ উত্তাল

নবীনগরে মাকে নৌকাঘাটে বসিয়া মেয়ে গায়েব

copy

নবীনগর( ব্রাহ্মণবাড়িয়া )প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে মাকে নৌকা ঘাটে বসিয়ে টাকা খুচরা ( ভাঙ্গানোর ) আনার কথা বলে মেয়ে আর ফিরে আসেনি। ঘন্টার পর ঘন্টা নৌকা ঘাটে মা অপেক্ষা করেও মেয়ের সন্ধান না পেয়ে অবশেষে তিনদিন পর ২৫ নভেম্বর সোমবার থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন অসহায় মা মোছেনা বেগম। ঘটনাটি গত ২২ নভেম্বর নবীনগর বাজারের নৌকা ঘাটে ঘটেছে।

জানা যায়, নবীনগর উপজেলার উরখুলিয়া গ্রামের আইয়ুব মিয়ার কন্যা খাদিজা বেগমের সাথে একই উপজেলার দূর্গারামপুর গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী মমিন মিয়ার ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে বিয়ে হয়। গত ৩ মার্চ সৌদি আরবে স্বামীর কাছে চলে যান খাদিজা বেগম। দীর্ঘ ৬ মাস স্বামীর সাথে সৌদি আরব থাকার পর ২৭ সেপ্টেম্বর দেশে ফিরে আসেন খাদিজা বেগম।

২২ নভেম্বর ডাক্তার দেখানোর কথা বলে শ^শুড় বাড়ি থেকে নবীনগর এলে নবীনগর সদর বাজারের নৌকাঘাটে তার মা মোছেনা বেগমের সাথে দেখা হয়। ওই সময় টাকা ভাংতি আনার কথা বলে খাদিজা বেগম তার মাকে নৌকাঘাট বসিয়ে দিয়ে চলে যাওয়ার কয়েক ঘন্টা অতিবাহিত হওয়ার পরও খাদিজা বেগম ফিরে না আসায় মা মোছেনা বেগম নবীনগর সদর বাজারে মেয়েকে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। দিনভর বিভিন্ন জায়গায় খুঁজাখুজিঁ করেও মেয়ের কোন সন্ধান না পেয়ে, তার শ^শুর বাড়িতে খবর নিয়ে জানতে পারে ওইখানে সে যায়নি।

কোন আত্বীয়-স্বজনদের বাড়িতেও যায়নি। নিখোঁজের তিন দিন পার হয়ে গেলেও মেয়েকে না পেয়ে অবশেষে সোমবার খাদিজার মা মোছেনা বেগম নবীনগর থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন। ডায়েরী নং ৯৫৩। এ বিষয়ে খাদিজা বেগমের বড় ঝা শিউলী বেগম বলেন, আমাদের সংসারে কোন অশান্তি নেই। খাদিজা ডাক্তারের কাছে আসার সময় আমার শাশুরী তাকে গরম দুধ খেতে দিয়েছে। আমার শাশুরী আমাদেরকে মেয়ের মতো স্নেহ করেন। খাদিজা নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে আমার শাশুরী অসুস্থ হয়ে পরেছেন।

এ বিষয়ে নবীনগর থানার ওসি (তদন্ত) রাজু আহম্মেদ সাধারণ ডায়েরীর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি নিখোঁজ খাদিজা বেগমকে দ্রুত সময়ের মধ্যে উদ্ধার করার জন্য।
খাদিজার সন্ধান পেলে ০১৭৭৬৩৯৪৪৮৪ মোবাইল নাম্বারে জানাতে বিনিত অনুরোধ করেছেন তার মা মোছেনা বেগম।

Print Friendly, PDF & Email