Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
 #  বিশেষ সুবিধায় খেলাপি ঋণ নবায়ন আবেদনের সময় বাড়ছে #  অনুমতি না পাওয়ায় ভোলায় আজকের সমাবেশ স্থগিত #  ভোলায় নিহত ৪, পরিস্থিতি এখনো থমথমে #  প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের আন্দোলন : কঠোর অবস্থানে মন্ত্রণালয় #  ভোলার ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন ও পুলিশের বক্তব্য #  ঢাবি অ্যালামনাই এসোসিয়েশনে কেন যেতেন জি কে শামীম #  পদ হারালেন ওমর ফারুক #  ডিআইজি প্রিজন বজলুর রশীদ কারাগারে #  গণভবনে প্রবেশের সুযোগ পাননি যুবলীগের শীর্ষ ৪ নেতা #  ভাঙ্গা ঘরে চাদের আলো মাহেন্দ্র চালকের মেয়ে ‘কনা’ পেয়েছেন মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ

বঙ্গোপসাগরে ট্রলারডুবি, ৯ জেলে উদ্ধার

BARGUNA (BK) PIC (1)

বীরেন্দ্র কিশোর, বরগুনা : তিন নম্বর সতর্কতা সংকেত অমান্য করে বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার সময় একটি ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার (৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে বঙ্গোপসাগরে দুবলার চর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় ডুবে যাওয়া ট্রলারে থাকা নয় জেলেকে উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী অপর একটি ট্রলারের জেলেরা।
ডুবে যাওয়া ট্রলারের মাঝিদের মধ্যে ৫ জনের নাম জানা গেছে। তারা হলেন নুরুল ইসলাম (৩০), শহিদ প্যাদা (৩৫), লতিফ (৩৫), পান্না (২৫) এবং শাহিন (৩৫)। এদের সকলের বাড়ি বরগুনা সদর উপজেলার নিশানবাড়িয়া সোনাতলা এলাকায়।
বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সাধারণ স¤পাদক মো. আবুল ফরাজী বলেন, বরগুনার পাথরঘাটা থেকে আনুমানিক ৪০ কিলোমিটার দক্ষিণে বঙ্গোপসাগরের দুবলার চর এলাকায় এফবি রবিউল নামের একটি ট্রলারে মাছ ধরছিলেন নয়জন জেলে। প্রবল স্রোত ও উত্তাল সমুদ্রে ঢেউয়ের কবলে পড়ে হঠাৎ করে সমুদ্রে ডুবে যায় ট্রলারটি। ডুবে যাওয়া ট্রলারের মালিকের নাম হানিফ খাঁ। তিনি বরগুনা সদর উপজেলার নিশানবাড়িয়া সোনাতলা এলাকার বাসিন্দা।
ডুবে যাওয়া ট্রলারের সকল জেলেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এদের মধ্যে শাহিন প্যাদা ও বরিউল গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email