Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
 #  আমিরাতের শ্রমবাজার খুলে দেয়ার ইঙ্গিত #  নবীগঞ্জে এমপি মিলাদ গাজীকে সংবর্ধনা #  বরগুনায় র‌্যাবের অভিযানে কারেন্ট জাল জব্দ #  বরগুনায় অস্ত্রসহ ১৪ মামলার আসামি গ্রেফতার #  রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে কাজ করছে চীন : রাষ্ট্রদূত #  হোলে আর্টিজান মামলার রায় ২৭ নভেম্বর #  নবীনগরে লতিফ এমপি’র ১৮ তম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত #  বিএনপির চিঠি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে #  ৬০ বছরই থাকছে মুক্তিযোদ্ধাদের অবসরের বয়স

মরলে অসুবিধা নাই , হুকুম দেন আন্দোলন করবো : ফারুক

Faruk

বাংলা কন্ঠ ডেস্কঃ  বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক দলের নীতিনির্ধারকদের কাছ থেকে আন্দোলন কর্মসূচি চেয়ে বলেছেন, আন্দোলনের জন্য সবাই প্রস্তুত। ওবায়দুল কাদের সাহেব বলেন, বিএনপির আন্দোলনের হেডাম নেই, আন্দোলন করেন, জামিন করেন।

‘আমারও ওবায়দুল কাদের সাহেবের সাথে প্রশ্ন, আমরা মাঠে নামছি না কেন? তিনি বলেন, হুকুম দেন, এখনও মরিনি, আমি মরলে কোনো অসুবিধা হবে না। কারণ আমার এখন পাবার কিছু নেই।’

শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে জাতীয়তাবাদী নবীন দল আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় এসব কথা বলেন জয়নুল আবদিন। কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এ সভার আয়োজন করা হয়।

ফারুক বলেন, একটা কথা আছে-কসাই মরে, জবাই মরে না। শহীদ জিয়াকে ষড়যন্ত্র করে হত্যা করা হলেও তার আদর্শ মরে নাই। সেই আদর্শে অনুপ্রাণিত আজকে আলাল, খায়রুল কবির খোকন, শ্যামা, নিপুণ আমার মতো নগণ্য কর্মী এবং এই বৃদ্ধ বয়সে মামলায় যিনি জর্জরিত বেগম খালেদা জিয়া।

তিনি বলেন, (আন্দোলনে) তৃণমূল প্রস্তুত, প্রস্তুত কে না? তারা প্রস্তুত না? যখন বেগম জিয়ার গাড়ি গুলশান থেকে রওনা দেয়, তখন হাজার হাজার মানুষ নেতৃত্ব দিয়েছেন মাকে জেলে যেতে দেব না। এই স্লোগানে ঢাকার শহর মুখরিত হয়েছিল। ‘২০ মাস হলো আরও কতদিন হবে আমি জানি না। আমি একজন রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে আমার কোনো গুণ নেই। আমি কোনো গুণান্বিত নয়। কিন্তু আমি একজন সাচ্চা বিএনপির রাজনৈতিক কর্মী। আমি আজকে প্রশ্ন রাখতে চাই যে, প্রস্তুত কারা না? প্রস্তুত তো তৃণমূল। কয় ঢাকার শহরে কোনো অবদান নেই। আমি বিশ্বাস করি না।’

বিএনপির এ নেতা আরও বলেন, ‘ঢাকার শহরে মিটিংয়ে যখন পুলিশ বাধা দেয়, তখন কত লোকের সমাগম হয়। কে বলে ঢাকার শহরে লোক নামে না। তাহলে প্রস্তুত কে না? এই প্রশ্ন রেখে তৃণমূল নেতারা আমাদের জিজ্ঞেস করে। সেটার উত্তর দেবার শক্তি আমার নেই।’

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘ব্যারিস্টার মওদুদ ভাই, আমি আপনাকে অনেকদিন চিনি। আমার বাবা আপনার বাবার ছাত্র। আমার বাড়ি থেকে আপনার বাড়ি মাত্র দেড় কিলোমিটার দূরে। আজকে মাকে (বেগম খালেদা জিয়া) মুক্তি করার জন্য আপনিও বলেন, আইনের পথে হবে না। আমার নেতারা বলেন, যেটা শুনি টেলিভিশনের মাধ্যম। তাহলে কীসে হবে? হবে একটা আন্দোলন। সেই আন্দোলনের কথা তো ওবায়দুল কাদের বলেন, যিনি আপনাকে ঘর থেকে বের হতে দেন নাই। উনি তো বলেন যে, বিএনপির কোনো হেডাম নেই। বিএনপি আন্দোলন করার কোনো প্রক্রিয়া জানে না। মাঠে নামেন, আন্দোলন করেন, জামিন পেয়ে যাবেন। আমারও ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে প্রশ্ন, আমরা রাস্তায় নামি না কেন?’

ফারুক বলেন, সবাই বলেন আমরা মুক্ত করব। মুক্ত করবার জন্য সবাই প্রস্তুত। ছাত্রদল বলেন, যুবদল বলেন আন্দোলনের জন্য সবাই প্রস্তুত। সে উদ্যোগটা কখন নেয়া হবে? হুকুম দেন, মরিনি, আমি এখন মরলে কোনো অসুবিধা নেই। কারণ আমার পাবার কিছু নেই।

তিনি আরও বলেন, আমার নেতা মওদুদ ভাইয়ের কাছে বলব যে, আন্দোলন কর্মসূচি দেন। দেবেন দেবেন বলে মাস চলে যাচ্ছে, খালেদা জিয়ার কষ্ট হচ্ছে। আর কত কষ্ট করবে? আসুন না রাস্তায় নামি। সবাই প্রস্তুত তবে আন্দোলন নয় কেন?

Print Friendly, PDF & Email