#  মানুষের দুর্ভোগে অযথা দাম বাড়িয়ে মুনাফা নেয়া অমানবিক : প্রধানমন্ত্রী #  করোনা পরিস্থিতি এখন বেশি ভয়ঙ্কর : মির্জা ফখরুল #  দেশে আরো দুজন করোনায় আক্রান্ত #  নবীগঞ্জে রামদা চাইনিজ কুড়ালসহ ৩ ডাকাত গ্রেফতার #  নবীগঞ্জের শ্রীমতপুর গ্রামে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাড়ীঘরে হামলা #  নবীগঞ্জে ত্রাণবিতরনে উপজেলা প্রশাসনকে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের আর্থিক সহযোগীতা #  লকডাউনই আমাদেরকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন থেকে রক্ষা করতে পারে : এমপি মজিদ খাঁন #  বানিয়াচংয়ে প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর যৌথঅভিযান ॥ ৭ জনকে অর্থদন্ড #  বানিয়াচংয়ে প্রশাসনের উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ #  করোনা: ক্ষতি পোষাতে তামাকপণ্যের দাম বাড়ান জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে আত্মা’র তামাক-কর ও দাম বৃদ্ধি বিষয়ক বাজেট প্রস্তাব #  করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় বানিয়াচংয়ে প্রশাসনের উদ্যোগে এমপি মজিদ খানের ত্রাণ বিতরণ #  আজমিরীগঞ্জে প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর সমন্বয়ে টাস্কফোর্সের অভিযান #  করোনা পরিস্তিতে শাল্লায় চলছে মডেল মসজিদ নির্মান,অনিয়মের অভিযোগ #  করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে শাল্লায় সেনাবাহিনীর টহল #  নবীগঞ্জে করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে এএসপির অভিযান #  বানিয়াচংয়ে করোনা প্রতিরোধে করনীয় বিষয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রচারণা

লিবিয়ায় সেনা মোতায়েন শুরু করেছে তুরস্ক

Ardujan

বাংলা কন্ঠ ডেস্কঃ তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান বলেছেন, গোলযোগপূর্ণ লিবিয়ার জাতীয় সরকারকে সমর্থন দেয়ার জন্য দেশটিতে সেনা মোতায়েন শুরু করেছে আঙ্কারা। তিনি জানান, সম্প্রতি লিবিয়া সরকারের সঙ্গে যে সমুদ্রসীমা চিহ্নিতকরুণ ও নিরাপত্তা সামরিক চুক্তি সই করা হয়েছে তার আওতায় তুর্কি সেনা মোতায়েন করা হচ্ছে।

এরদোগান বলেন, সমুদ্রসীমা চিহ্নিত করার জন্য লিবিয়া সরকারের সঙ্গে চুক্তি করা হয়েছে। দুই দেশের অনুমোদন ছাড়া লিবিয়া ও তুরস্কের উপকূলবর্তী এলাকায় তেল-গ্যাস অনুসন্ধান এবং পাইপলাইন নির্মাণের কাজ করা সম্ভব হবে না।

বৃহস্পতিবার রাজধানী আংকারায় তিনি জানান, চলতি বছরে ওই এলাকায় তেল গ্যাসের অনুসন্ধান শুরু হবে এজন্য শিগগিরই একটি গবেষণা জাহাজ পাঠানো হবে। এছাড়া, লিবিয়ার বৈধ সরকারকে টিকিয়ে রাখা এবং সেখানকার স্থিতিশীলতা রক্ষার জন্য তুরস্ক লিবিয়ায় সেনা পাঠাচ্ছে।

এর মাত্র দু দিন আগে লিবিয়ার ত্রিপোলিভিত্তিক জাতীয় সরকারের প্রধান ফাইয়াজ আল-সেরাজ এবং তবরুকভিত্তিক বিদ্রোহী সরকারের নেতৃত্বদানকারী খলিফা হাফতার রাশিয়ার রাজধানী মস্কোয় সরাসরি আলোচনায় বসেন কিন্তু যুদ্ধবিরতি চুক্তি ছাড়াই হাফতার দেশে ফিরে যান। রাশিয়া এবং তুরস্ক ওই আলোচনার ব্যবস্থা করেছিল। হাফতার দাবি করেছেন, লিবিয়ার সেনাদের অনেক দাবি-দাওয়া যুদ্ধবিরতি চুক্তির খসড়ায় স্থান পায়নি বলে তিনি তাতে সই করেননি। তবে তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেছেন, হাফতার যদি নতুন করে লিবিয়া সরকারের বিরুদ্ধে হামলা শুরু করে তাহলে তাকে উচিত শিক্ষা দেয়া হবে।
সূত্র : পার্স টুডে

Print Friendly, PDF & Email