#  মানুষের দুর্ভোগে অযথা দাম বাড়িয়ে মুনাফা নেয়া অমানবিক : প্রধানমন্ত্রী #  করোনা পরিস্থিতি এখন বেশি ভয়ঙ্কর : মির্জা ফখরুল #  দেশে আরো দুজন করোনায় আক্রান্ত #  নবীগঞ্জে রামদা চাইনিজ কুড়ালসহ ৩ ডাকাত গ্রেফতার #  নবীগঞ্জের শ্রীমতপুর গ্রামে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাড়ীঘরে হামলা #  নবীগঞ্জে ত্রাণবিতরনে উপজেলা প্রশাসনকে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের আর্থিক সহযোগীতা #  লকডাউনই আমাদেরকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন থেকে রক্ষা করতে পারে : এমপি মজিদ খাঁন #  বানিয়াচংয়ে প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর যৌথঅভিযান ॥ ৭ জনকে অর্থদন্ড #  বানিয়াচংয়ে প্রশাসনের উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ #  করোনা: ক্ষতি পোষাতে তামাকপণ্যের দাম বাড়ান জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে আত্মা’র তামাক-কর ও দাম বৃদ্ধি বিষয়ক বাজেট প্রস্তাব #  করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় বানিয়াচংয়ে প্রশাসনের উদ্যোগে এমপি মজিদ খানের ত্রাণ বিতরণ #  আজমিরীগঞ্জে প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর সমন্বয়ে টাস্কফোর্সের অভিযান #  করোনা পরিস্তিতে শাল্লায় চলছে মডেল মসজিদ নির্মান,অনিয়মের অভিযোগ #  করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে শাল্লায় সেনাবাহিনীর টহল #  নবীগঞ্জে করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে এএসপির অভিযান #  বানিয়াচংয়ে করোনা প্রতিরোধে করনীয় বিষয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রচারণা

শাল্লায় দায়সাড়া ভাবে চলছে কোটি টাকার কাজ

20200111_160545

শাল্লা প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার ৪নং শাল্লা ইউনিয়নের ইয়ারাবাদ থেকে কান্দখলা পর্যন্ত রাস্তার কোটি টাকা সংস্কার কাজে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয়দের দাবি দীর্ঘ দিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় খানা-খন্দে রাস্তাটি ব্যবহারে জনগণের ভোগান্তি ছিলো চরমে। এখন আবার সংস্কারের নামে নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করা হচ্ছে। এতে করে সংস্কারের কয়েক মাসের মধ্যে আবারো রাস্তাটি ব্যবহারের অনুপযোগী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।
সরেজমিনে দেখা যায়, প্রায় দুই কিলোমিটার রাস্তাটির ইট, খোয়া ও পাথর উঠে গিয়ে যান চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এর মাঝেই রাস্তাটি সর্ম্পূণভাবে সংস্কার না করে যেখানে ভাঙ্গা ও গর্ত আছে শুধু সেখানেই ইটের খোয়া দিয়ে সংস্কার কাজ চলছে। যদিও সম্পূর্ণ রাস্তাটি নতুন করে সংস্কার করার জন্য বলা হয়েছে। এক্ষেত্রে দায়সারাভাবেই রাস্তাটি নির্মাণ করা হচ্ছে। এছাড়াও নিম্নমানের ইট ব্যবহার করে কোনো রকমে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।
শাল্লা উপজেলা এলজিইডি অফিস সুত্রে জানা যায়, ইয়ারাবাদ থেকে কান্দখলা পর্যন্ত দুই কিলোমিটার রাস্তা সংসার কাজে ১কোটি ২০লাখ টাকা বরাদ্দ হয়েছে। রাস্তাটি সংস্কার কাজ করছে সুনামগঞ্জের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মের্সাস শফিক এন্টারপ্রাইজ। 
স্থানীয় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সাত্তার বলেন, রাস্তাটি দীর্ঘদিন সংস্কারহীন ছিলো। যে কারণে সাধারণ মানুষ ও যানবাহন চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়ে। এখন রাস্তাটি পুনঃনির্মাণের জন্য ১কোটি ২০ লাখ টাকার টেন্ডার হলেও ঠিকাদার নিম্নমানের ইট, বালু ও পাথর দিয়ে রাস্তাটি কাজ করছে। এভাবে কাজটি শেষ করলে এক বর্ষা মৌসুমেই রাস্তাটি আবারো ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়বে।
হুমায়ুন আহমেদ বলেন, ইস্টিমেটে উল্লেখ রয়েছে ভোলগঞ্জের এলসি পাথরের কথা। সেখানে সুনামগঞ্জের লোকাল পাথর দিয়ে কাজ করছে ঠিকাদার জাকির হোসেন। 
অভিযোগের বিষয়ে ঠিকাদার জাকির হোসেন বলেন, রাস্তাটি গত দু’বছর যাবৎ সংস্কারহীন ছিলো। ক্ষতি হবে জেনেও ১কোটি ২০লাখ টাকার টেন্ডার হওয়া রাস্তাটি শুধু গ্রামবাসীর কথা চিন্তা করেই সংস্কার কাজ শুরু করি। নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহর করছেন এমন প্রশ্নের জবাবে ঠিকাদার জাকির হোসেন বলেন, গত কয়েকদিন আগে এলজিইডি থেকে লোকজন এসে ইটের খোয়া নিয়ে গেছে ল্যাবে পরীক্ষা করার জন্য। তারা বলেছেন আরো ভালো মানের ইটের খোয়া ব্যবহারের জন্য। তবে রাস্তাটির নির্মাণ কাজ বন্ধ করতে বলেনি।
এ বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ ইশতিকার হোসেন বলেন, আমি শাল্লায় অতিরিক্ত দায়িত্বে রয়েছি। তবে এই বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়ে দেখব। যদি নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করা হয়, তাহলে আমি বিল আটকে দেব। কোনো নিম্নানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করা যাবে না।

Print Friendly, PDF & Email