মাধবপুরে জগদিশপুর ফাঁড়ি চা বাগানের ব্রিজের বেহাল দশা

মঈনুল হাসান রতন,হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার নোয়াপাড়া ইউনিয়নের জগদিশপুর ফাঁড়ি চা বাগানের ব্রিজের বেহাল অবস্থায় পরিণত হয়েছে। চা বাগানের মানুষের উপজেলা সদরে যাতায়াতের এটিই একমাত্র ব্রিজ। চা বাগানের রাস্তার খালের ওপর এই ব্রিজটি পাকিস্তান আমলে নির্মাণ করা হয়েছিল। ব্রিজটি দিয়ে প্রতিদিন শত শত লোকের যাতায়াত রয়েছে।

পাহাড়ি পানির স্রোতে ১০ বছর আগে ব্রিজটি ভেঙে যায়। পরবর্তিতে চা বাগান কর্তৃপক্ষ কাঠের ব্রিজ তৈরি করে দেন। যা দিয়ে বর্তমানে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পথচারীরা পার হচ্ছে।ব্রিজের কয়েকটি গাছের তৈরী পিলার ভেঙে গেছে। স্থানীয়রা বাঁশ বেঁধে ব্রিজের নিচে জোড়া দিয়েছে। ব্রিজের অনেক লোহার পাত মরিচা পড়ে বাকা হয়ে গেছে। কাঠের পাত ভেঙে সেই স্থান ফাঁকা হয়ে গেছে।

বর্তমানে ব্রিজটি দিয়ে পারাপার ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে- ফাঁড়ি চা বাগান বাসিকে ঝুঁকি নিয়ে ব্রিজ দিয়ে পার হয়ে নোয়াপাড়া বাজার, মাধবপুর উপজেলা ও হবিগঞ্জ জেলা শহরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যেতে হচ্ছে। বর্তমানে ব্রিজের যে অবস্থা তাতে যে কোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।এ ব্রিজ দিয়ে সাইকেলে, মোটরসাইকেল ছাড়া অন্য যানবাহন চলতে পারে না। অসুস্থ রোগী কিংবা গর্ভবতী নারীদের উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে যেতে হয় খুবই ঝুঁকির মধ্যে দিয়ে।

এ ব্যাপারে দিনরাত নিউজের সাথে কথা হলে জগদিশপুর চা বাগানের বাসিন্দা আবু জাহের বলেন, যেকোনো সময় ব্রিজটি ভেঙে যেতে পারে। এটি নির্মাণে কেউ উদ্যোগ নিচ্ছে না। নানান সময়ে ব্রিজ নির্মানে জনপ্রতিনিধিরা আশা দিলেও পরে আর পাওয়া যায় না।জগদিশপুর জেসি উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর শিক্ষার্থী তাহমিনা আক্তার বলেন, ব্রিজটি পার হতে আমি খুব ভয় পাই একদিন পারহতে গেলে আমার বই, খাতা ব্রিজের নিচে পানিতে পড়ে যায়। তাই আমি ব্রিজটি নির্মানের জন্য মাধবপুর উপজেলা পরিষদসহ সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *