বানিয়াচংয়ে ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ ॥ শ্বাসরোধ করে হত্যা

বাংলা কণ্ঠ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ের পল্লীতে ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রী সুবর্ণা সরকার(৯) নামে এক শিশুকে ধর্ষনের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। সে বানিয়াচং উপজেলার বড়ইউড়ি ইউনিয়নের ছিলারাই গ্রামের প্রভাত সরকারের কণ্যা ও ছিলারাই সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রী।

একই গ্রামের প্রতিবেশী হগেন্দ্র সরকারের পুত্র লম্পট খুনি রিংকু সরকার(১৯) কে বানিয়াচং থানা পুলিশ গ্রেফতার করেছে। রিংকু ১৮ মে সোমবার ঘটনার সাথে জড়িত আছে বলে বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী প্রদান করেছে। এলাকাবাসী ও মামলা সূত্রে জানাযায়  ১৫ মে শনিবার সন্ধ্যা অনুমান ৭ ঘটিকার সময় নিজ বাড়ী হইতে নিখোঁজ হয়।

পরিবারের লোকজন বহু খোজাঁখুজির এক পর্যায়ে প্রতিবেশী রিংকুর আচরন সন্দেহজনক হওয়ায় স্থানীয় মেম্বার আবুল কালাম তাকে আটক করে থানায় খবর দেন। পরে বানিয়াচং থানায় অবহিত করিলে বিষয়টি অফিসার ইনচার্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্লা বিপিএম, পিপিএমকে জানাইলে তাহার দিক নির্দেশনায় বানিয়াচং সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ মোঃ সেলিমের নেতৃত্তে অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ এমরান হোসেন, ইন্সপেক্টর (তদন্ত) প্রজিত কুমার দাস সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে রিংকু সরকারকে জিজ্ঞাসাবাদ করিলে সে সুবর্ণা সরকারকে রাত ৮ ঘটিকার সময় তাহার বাড়ীর পূর্ব পাশে ধানের খলায় ধর্ষণ করে ও শ্বাসরোধ করিয়া হত্যা করে লাশ একটি ডোবার পানিতে ফেলে দেয় বলিয়া জানায়।

রিংকু সরকারের দেওয়া তথ্য ও দেখানো মতে পুলিশ স্থানীয় জগৎ সরকারের বাড়ীর পূর্ব পাশের ডোবা হইতে লাশ উদ্ধার করে মৃত দেহের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করে ময়না তদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

সুবর্ণার পিতা বাদী হয়ে থানায় এজাহার দায়ের করলে বানিয়াচং থানার মামলা নং-১৫, তারিখ-১৮/০৫/২০২০ইং, ধারা-নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সং/০৩) এর ৯(২) তৎসহ দঃ বিঃ ২০১ ধারা রুজু করা হয়।

এব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ মোঃ সেলিম জানান. খবর পাওয়ার পরেই অপরাধীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত আছে বলে বিজ্ঞ আদালতে রিংকু সরকার স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী প্রদান করেছে। অপরাধীর সর্বোচ্ছ শাস্তি নিশ্চিত করার লক্ষ্য নিয়েই পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে। তিনি আরো বলেন এটা একটি সামাজিক অবক্ষয়। এধেেণর ঘটনা যেনো কোথাও পুনরায় না ঘটে সেজন্য অভিভাবকদের সচেতন থাকতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *