বানিয়াচংয়ে উপচেপড়া ভিড় সামলাতে আবারো বিপনীবিতান বন্ধ ॥ ৫০ জনকে অর্থদন্ড

বানিয়াচং(হবিগঞ্জ)প্রতিনিধি ॥ হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে ঈদের কেনাকাটা করতে আসা লোকজনের কারনে করোনা ভাইরাসে সংক্রমনের ঝুকি তৈরি হয়েছে।

হবিগঞ্জ জেলার আইন শৃংখলা কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিপনী বিতান গুলো আবারো বন্ধের নির্দেশ প্রদান করা হয় । প্রশাসনের কড়া নজরদারি স্বত্ত্বেও সামাজিক দূরত্ব না মেনে লোকজনের উপচেপড়া ভিড়ের মধ্যে মানুষের ঠেলাঠেলি দিনদিন করোনার ঝুকি তৈরি করছিল । স্থানীয় প্রশাসন প্রতিদিনই কোন না কোন স্থানে আইন ভঙ্গ করার দায়ে লোকজনও ব্যাবসায়ীদের জরিমানা করছেন।

২১মে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী অফিসার ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে উপজেলা সদরের বড়বাজার, আদর্শ বাজার, ৫/৬নং বাজার,গ্যানিংগঞ্জ বাজারে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা কালে দোকানপাঠ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত জানান। এসময় সরকারি আইন না মানায় সিএনজি,মোটর সাইকেল, টমটম,মিশুক ড্রাইভারসহ অন্তত ৫০ জনকে অর্থদন্ড করা হয়।

সম্প্রতি জেলা প্রশাসসেনর পক্ষ থেকে লকডাউন কিছুটা শিতিল ও বিপনীবিতান গুলো স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরিচালনা করার অনুমতি দিতেই লোকজনের উপচেপড়া ভিড় ছিল ভোর থেকে রাত পর্যন্ত।
প্রশাসন নিরুপায় হয়েই ঔষধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দোকান ব্যাতিত বাকী সব দোকানপাঠ বন্ধের জন্য কঠোর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

অতিরিক্ত ভিড় সামাল দিতে তিনটি দোকান এরই মধ্যে লকডাউন করা স্বত্তেও লোকজন আরও বেশি বেশি ভিড় ঠেলে কেনাকাটা করতে বিপনীবিতান গুলোতে ভিড় তৈরি করছিল।
বিশেষ করে কাপড়,জুতাও খাবার দোকানগুলোতে মহিলা ও শিশুদের ভিড় দেখে স্থানীয় সচেতন মহল থেকে প্রশাসনের কঠোর নজরদারির জন্য আহবান জানানো হয়।
প্রশাসনের এ সিদ্ধান্তকে সচেতন লোকজন স¦াগত জানিয়েছে।

এব্যাপারে বানিয়াচং মোঃ মামুন খন্দকার,উপজেলা নির্বাহী অফিসার,বানিয়াচং ও ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক মোঃ মামুন খন্দকার বলেছেন করোনা ভাইরাসের সংক্রমন থেকে বেঁচে থাকতে ব্যবসায়ীসহ সবাইকেই সরকারি সকল আদেশ মেনে চলতে হবে। কোন ব্যবসায়ী আইন অমান্য করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখলে তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *