করোনা আতঙ্কে এবারই ব্যতিক্রম, ঈদগাহে নয় মসজিদে ঈদের জামাত

এস এম জহিরুল ইসলাম,বানিয়াচং(হবিগঞ্জ) ॥  করোনায় আক্রান্ত সারাদেশ। স্বাভাবিক জনজীবন গত কয়েকমাস ধরেই থমকে গেছে। স্বাভাবিক চলাফেরায় রয়েছে নিষেধাজ্ঞা। কোলাহল এড়িয়ে সবাই পালন করছেন নিরাপদ দূরত্ব, মেনে চলছেন সামাজিক দূরত্ব।

সারাদেশ যখন মহামারী আতঙ্কে ঘরমুখো ঠিক তখনই এল মুসলমানদের পবিত্র মাস মাহে রমজান। আজ একটি মাস সিয়াম সাধনার পর সবাই যখন প্রস্তুত ঈদগাহে ঈদের নামাজ জামাতে আদায় করবেন,নামাজ শেষে বন্ধু বান্ধবদের সাথে মিলিত হবেন কোলাকুলি করবেন করোনা প্রতিরোধে তখনই ঘোষণা এল ঈদগাহে নয় নিজেদের এলাকার মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করতে হবে।

মহামারী করোনার কারনে এবারই প্রথম কোন ঈদের জামাত ঈদগাহে হলনা। এলাকাবাসী মসজিদে ঈদের জামাত সম্পন্ন করেছেন। উৎসবমূখর পরিবেশে শান্তিপূর্ণ ভাবে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বানিয়াচংয়ের প্রতিটি মসজিদেই মুসল্লীদের উপছে পড়া ভীড় থাকার ফলে এবং মসজিদগুলোতে মুসল্লী বেশি হওয়ায় একাধিকবার ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সকাল ৭ টায়,সাড়ে ৭ টায়,৮ টায় ও সাড়ে আটটায় মসজিদগুলোততে জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনেক মসজিদেই দেখা গেছে ভিতরে জায়গা না থাকার কারনে মুসল্লীরা মসজিদের বাহিরে দাড়িয়ে ঈদের জামাতে শরিক হয়েছেন।

জামাত শেষে খোদার কাছে সবাই প্রার্থনা করেন আল্লাহ যেন এই করোনা মহামারী থেকে সবাইকে হেফাজত করেন এবং এই করোনাকে মির্মূল করে সবাইকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে দেন।

ঈদগাহে এবার ঈদের জামাত আদায় আদায় করতে না পেরে অনেকেই আক্রেপ করে বলেন হায়রে করোনা তোর কারনে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারছিনা।তুই ধ্বংস হ । অনেক মুসল্লী বলেন ঈদগাহে নামাজ পড়তে পারিনী জানামতে এটাই ব্যতিক্রম। আল্লাহ যেন আমাদেরকে এই পরিস্থিতিতে আর না ফেলেন। এরকম ঘটনার যেন আর কখনও পুনরাবৃত্তি না হয়।আল্লাহ যেন আমাদেরকে মাফ করেন আর এই মহামারীর কবল থেকে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *