নাটোরের লালপুরে সাব-রেজিষ্টারের অনৈতিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদে মানববন্ধন

সুলতানুল আরিফিন কাজল,নাটোরঃ লালপুরে সাব – রেজিষ্টারের নানা অনিয়মের বিরুদ্ধে ও অনৈতিক কর্মের প্রতিবাদে দলিল লেখক ও নকলনবিসরা মানববন্ধন করেছে।
মঙ্গলবার ( ২ জুন) লালপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরে সাব- রেজিষ্ট্রি অফিসের সামনে দলিল লেখক ও নকল নবিসরা মানববন্ধনে অংশ নেয়।
দলিল লেখকরা নাটোর জেলা রেজিষ্টার বরাবর স্বারক লিপিতে উল্লেখ করেছেন গত মার্চ থেকে দলিল রেজিষ্টি বন্ধ, গত এক বছর যাবত দলিল ফেরত বন্ধ, দুপুর ২ টার পরে অফিসে এসে ৪ টার মধ্যে চলে যাওয়া, অফিসে না এসে নৈশ প্রহরি দিয়ে হাজিরা খাতাসহ প্রয়োজনীয় ফাইল পত্র বাহিরে নিয়ে যাওয়া, অফিসের মহিলা কর্মচারি ও নকল নবিশদের সহিদ আপত্তিকর আচরণ, লাইসেন্স বাতিলের হুমকি প্রদান করে থাকে। দলিল লেখক সুত্রে জানা যায়, লালপুর সাব – রেজিষ্টার মো: ওবায়েদ উল্লাহ গত রোববার ( ৩১ মে) ও সোমবার ( ১ জুন) জমি রেজিষ্টেশনের নির্ধারিত দিনে অফিস না করায় প্রায় দুই শতাধিক জমি ক্রয়- বিক্রেতারা চরম দুর্ভোগে পড়েছে।
দলিল লেখক সাইফুল ইসলাম বলেন, ৩ মাস পরে অফিস শুরু হওয়ায় সাব- রেজিষ্টার রোববার অফিসে না আসায় ও সোমবার ( ১ জুন) অফিসে এসে আধা ঘন্টা না থেকেই আফিসের ২ জন কর্মচারিকে সাথে নিয়ে চলে গেছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েক জন দলিল লেখক বলেন, সাব – রেজিষ্টার অফিসে নানা ভাবে দুর্নীতি করে যাচ্ছে, তার ইচ্ছামত কাজ করায় চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে, নিজে নারী লোভি। সাব- রেজিষ্টার অফিসের একজন নারী কর্মকর্তার সাথে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তুলেছে এবং তাকে নিজের গাড়ীতে করে  নিয়মিত যাতযাত করে থাকে। সাব- রেজিষ্টারের সহকারি সাজদার রহমান জানান, সাব – রেজিষ্টার গুরুদাসপুর ও বাগাতিপাড়া সাব- রেজিষ্টি্ অফিসের অতিরিক্ত দায়িক্ত পালন করায় আজকে অফিসে এসেই গুরুদাসপুরে গেছে, একজন নারী ষ্টাফ নাটোর অফিসে ও খলিলুর রহমান আজকে সাময়িক ছুটি নিয়ে বাড়িতে গেছে। খলিলুর রহমানের সাময়িক ছুটির আবেদন সম্পর্কে জানতে চাইলে আবেদন পত্র বের করে দেখান, সে আবেদন পত্রের সাথে আজকের সাময়িক ছুটির তারিখের মিল নেই, তাতে আগামী কালের ০২ /০৬/২০২০ তারিখ দিয়ে আবেদন করা এবং সাব- রেজিষ্টার স্বাক্ষর করেছেন ০২/০৬/২০২০ লিখে। এ ব্যাপারে খলিলুর রহমান জানান, ভুলে ০২/০৬/২০২০ তারিখ লেখা হয়েছে, তার পরেও কালকি আফিস করব।
সাব রেজিষ্টার মো: ওবায়েদ উল্লাহ ‘র সাথে এ ব্যপারে কথা বলার জন্য মোবাইল ফোনে ( মো: ওবায়েদ উল্লাহ ০১৯১৮১৩২৯৩০) একাধিক বার চেষ্টা করলেও ফোন ধরেেন নি।
এব্যাপারে লালপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মুল বানীন দ্যুতি জানান , বিষয়টি আমি অবগত হয়েছি এবং উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করেছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *