ব্রিটেনের রেডিং পার্কে হামলাকারী লিবিয় নাগরিক

মতিয়ার চৌধুরী, লন্ডন : ব্রিটেনের রেডিং ফরবারি গার্ডেন পার্কে সন্ত্রাসী হামলার সাথে জড়িত পুলিশের হাতে আটক খাইর সাদাল্লাহকে (২৫) সম্পর্কে আগে থেকেই অবগত ছিল গোয়েন্দা সংস্থা এমআই-৫। ২০জুন শনিবার রেডিং এলাকার ওই পার্কে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয় কমপক্ষে ৩ জনকে, মারাত্মক ভাবে আহত হয়েছেন আরো ৩ জন। নিহতদের একজনের নাম প্রকাশ করেছে পুলিশ। তিনি হলেন জেমস ফারলং। তিনি একটি স্কুলের শিক্ষক।

এ ঘটনায় হামলাকারী সাদাল্লাহকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে জানানো হয় এটা ছিল সন্ত্রাসী হামলা। তবে এ ঘটনার সাথে আরো কেউ জড়িত রয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। এই হামলায় প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন হতাশা ও বেদনা প্রকাশ করেছেন।

বিভিন্ন সূত্র বলেছে, সাদাল্লাহ লিবিয়ার নাগরিক। সে ২০১৯ সালেই এমআই ৫-এর নজরে আসে। কাউন্টার টেরোরিজম পুলিশিং সাউথ ইস্ট বলেছে, রেডিং এলাকার ২৫ বছর বয়সী যে ব্যক্তিকে শনিবার এই হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে আটক করা হয়েছিল, তাকেই সন্ত্রাস বিষয়ক আইন ২০০০ এর ৪১ ধারা অনুযায়ী আবার গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। এদিকে নিহত জেমস ফারলং শিক্ষকতা করতেন দ্য হল্ট স্কুলে।

সেখান থেকে তাকে একজন দয়ালু ও ভদ্র মানুষ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে। বলা হয়েছে, তিনি দায়িত্বের প্রতি ছিলেন অনুরক্ত।

এক বিবৃতিতে মাধ্যমিক পর্যায়ের মেয়েদের এই স্কুলের সহশিক্ষক অ্যানি কেনেডি এবং কেটি পিয়ার্স বলেছেন, সমস্তটা দিয়ে সবাইকে পড়াতেন ফারলং। তিনি সবাইকে উৎসাহিত করতেন। বিবিসির স্বরাষ্ট্র বিষয়ক প্রতিনিধি ডমিনিক ক্যাসিনির মতে, গ্রেপ্তার করা এই ব্যক্তির বিদেশ সফরের উচ্চাকাঙ্খা ছিল। এ বিষয়ে তথ্য পাওয়ার পর নিরাপত্তা বিষয়ক কর্মকর্তাদের নজরে আসে সে। আরো তদন্ত করে তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *