হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় নাগুড়া ফার্মে স্থাপনের দাবীতে বানিয়াচংয়ে বিশাল মানববন্ধন

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় নাগুড়া ফার্মে স্থাপনের দাবীতে বানিয়াচং উপজেলার ৭ নং বড়ইউড়ি ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণের উদ্যোগে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে ।

০৯ নভেম্বর সোমবার সকালে হবিগঞ্জ-নবীগঞ্জ সড়কের শিবগঞ্জ বাজারে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা বলেন “হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়টি” হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলাধীন নাগুড়া কৃষি ফার্ম এলাকায় স্থাপন করা হলে সরকারের হাজার কোটি টাকা সাশ্রয়ের পাশাপাশি হবিগঞ্জ বাসীর লালিত স্বপ্ন পুরণ হবে।

নাগুড়া কৃষি ফার্মকে কেন্দ্র করেই মূলত কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের চিন্তা ভাবনা করে ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এডভোকেট আব্দুল মজিদ খান। এরই প্রেক্ষিতে হবিগঞ্জে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভায় কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের দাবী করা হয়ে ছিল। সেই দাবীর প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রীর অকৃপণ হস্তে গত ১০ সেপ্টেম্বর মহান জাতীয় সংসদে “হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়” আইন পাস হয়।

তারা আরো বলেন নাগুড়া ফার্ম এলাকায় ১০০ একরের উপরে সরকারি খাস জমি, হাজার হাজার একর কৃষি অকৃষি জমি ও প্রয়োজনীয় অবকাঠামো এবং গবেষণাগার বিদ্যমান। ইচ্ছে করলে এখনই শিক্ষা কার্যক্রম চালু করা সম্ভব।

উক্ত স্থানটি হবিগঞ্জ জেলার নয়টি উপজেলার প্রাণকেন্দ্র, যোগাযোগ ব্যবস্থা ও পরিবেশ অত্যন্ত ভাল।
এখানে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করলে আপাতত সরকারের কোন জমি ক্রয় করার প্রয়োজন হবে না। পরবর্তীতে যদি জমি ক্রয় করার প্রয়োজন হয় তাহলে শহরের তুলনায় এখানে জমির মূল্যও প্রায় ৩০ গুন কম হবে।

মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট তাদের আকুল আবেদন জানিয়ে বলেন একটি তৈরি জায়গা থাকতে নতুন করে আরেকটি জায়গা তৈরি করে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করে সরকারের হাজার কোটি অপচয় করার কোন যুক্তিকতা নেই। সার্বিক দিক বিবেচনায় নাগুড়া কৃষি ফার্ম এলাকায়ই “হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়” স্থাপনের একমাত্র উপযুক্ত স্থান।

বড়ইউড়ি ইউনিয়নের বিশিষ্ট মুরুব্বি ফরিদ আহমদের সভাপতিত্বে ও মোঃ হারুন মিয়ার পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বানিয়াচং উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ফারুক আমিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসিনা আক্তার,বক্তারপুর আবুলখয়ের স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক কামাল হোসেন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা মহিবুর রহমান, মুছাব্বির মিয়া, মুকিত মিয়া, রুহুল আমিন, সুবেদ আলী, মহিবুর রহমান, আব্দুর রকিব, জসিম উদ্দিন, কামরুজ্জামান, ওমর আলী প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *