সংবাদপ্রত্র সেবী সুরত মিয়া মাসুকের মৃত্যু : ব্রিটেনে বাংলাদেশী কমিউনিটিতে শোকের ছায়া

মতিয়ার চৌধুরী,লন্ডন: ব্রিটেনের বাংলাদেশী কমিউনিটির প্রিয়মুখ বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, শিক্ষানুরাগী, সংবাদপত্রসেবী ও লন্ডন থেকে প্রকাশিত অধুনালুপ্ত সাপ্তাহিক সিলেটের ডাক-এর পরিচালকমন্ডলীর চেয়ারম্যান সুরত মিয়া মাশুক আর নেই (ইন্না লিল্লাহ ই ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। গেল ২২ মার্চ স্থানীয় সময় ভোরে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে নিজ বাসায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

তিনি দীর্ঘদিন যাবত হৃদরোগ, ডায়বেটিশসহ বিভিন্ন জটিল রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৬১ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, তিন ছেলে ও এক মেয়ে, ভাই বোন সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। বাংলাদেশী কমিউনিটির এই নেতা সারের রেডহীল শহরে ব্যবসায়কি সূত্রে বসবাস করতেন । সোমবার সকালে রেডহীলস্থ নিজ বাড়ীতেই তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তাঁর মৃত্যুতে ব্রিটেনের বাংলাদেশী কমিউনিটিতে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

২৯ মার্চ লন্ডন সময় দুই ঘটিকায় নামাজে জানাজা শেষে তাঁকে সারের রেড ষ্টোন গোরস্তানে সমাহিত করা হয়। তার নামাজে জানাজায় ব্রিটেনের বিভিন্ন শহর থেকে ব্যসায়ী, রাজনীতিক, সাংবাদিক সহ বাংলাদেশী কমিউনিটির বিশিষ্ট জনেরা অংশ নেন।

১৯৫৯ সালের ২৫শে আগষ্ট সুনামগন্জ জেলার দিরাই উপজেলার হাতিয়া গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম নেয়া প্রয়াত সুরত মিয়া মাসুক ব্রিটেনের বাংলাদেশী কমিউনিটিতে একজন সুপরিচিত ব্যবসায়ী ও দানশীল ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত ছিলেন। তাঁর বাবার নাম মাহমুদ মিয়া । ৯০ দশকের শেষ দিকে অন্যান্য ব্যবসার পাশাপাশি সুরত মিয়া মাশুক সংবাদপত্র প্রকাশনার সাথে সম্পৃক্ত হন। আরও কজন ব্যবসায়ীকে সাথে নিয়ে তিনি লন্ডন থেকে প্রকাশ করেন সাপ্তাহিক সিলেটের ডাক।

পত্রিকাটির পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করেন তিনি। এছাড়া বাংলাদেশে নিজ এলাকায় বিভিন্ন শিক্ষা ও সামাজিক উন্নয়নে তার প্রচুর অবদান রয়েছে। একজন দানশীল ব্যক্তি হিসেবে নিজ এলাকাসহ বৃহত্তর সিলেট অঞ্চলে তাঁর ছিলো ইতিবাচক ইমেজ। পরিবারের পক্ষ থেকে তার একমাত্র ছোট ভাই সুলেখক শামসুজ্জামান ঝুনু বড়ভাইয়ের আত্মার মাগফেরাতের জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।

জনাব সুরত মিয়া মাসুকের মৃত্যুতে গভীরভাবে শোক প্রকাশ করেছেন সাংবাদিক সৈয়দ আনাছ পাশা, সাংবাদিক মতিয়ার চৌধুরী, একাত্তরের ঘাতক-দালাল নিরমুল কমিটির নেতা আনসার আহমদ উল্লাহ, বাংলাদেশ ওয়েল ফেয়ার এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ও ও যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সহসভাপতি হরমুজ আলী, রাজনিতিবিদ কয়েছ চৌধুরী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব হারুনুর রশিদ, যুব নেতা জামাল খান, ব্যবসায়ী নেতা রফিক মিয়া সহ বিশিষ্টজনেরা এক শোক বার্তায় তারা প্রয়াতের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *