বানিয়াচং উপজেলা শিক্ষা অফিসার শফিকুল ইসলাম সরকারের আজ বানিয়াচংয়ে এক বছর

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ বানিয়াচং উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম সরকারের আজ ০৮ সেপেটম্বর বুধবার বানিয়াচংয়ে এক বছর পূর্ণ হলো। করোনা দুর্যোগ থাকা সত্বেও তিনি যোগদানের পর থেকে বিভিন্ন কর্মসুচি হাতে নিয়ে কাজ করার ফলে শিক্ষা প্রশাসনে আমুল পরিবর্তন এসেছে।

শুরুতেই তিনি হবিগঞ্জ-২ আসনের সাংসদ আলহাজ্ব এডভোকেট আব্দুল মজিদ খানের সহযোগিতায় শিক্ষা অফিসে প্রয়োজনীয় মেরামতসহ সজ্জিতকরণ সম্পন্ন করেন। যা শিক্ষক, সুধি ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ প্রত্যেককেই মুগ্ধ করেছে। এর ধারাবাহিকতায় বিদ্যালয় পর্যায়ে শুরু করেন অফিস ও শ্রেণিক্ষক মেরামত, সজ্জিত করন, দ্রুততম সময়ে সেবা প্রদানসহ শিক্ষকদের সাথে আন্তকরিকতা পূর্ন ব্যবহারের ফলে তিনি খুব অল্প সমযেই শিক্ষকদের অন্তরে স্থান করে নিয়েছেন।

১৫টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত বিশাল আয়তনের বানিয়াচং উপজেলায় সদ্য জাতীয় করণসহ মোট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে ১৬৭টি । প্রধান শিক্ষকসহ ৯৩৪জন শিক্ষকের বিশাল এ জনবলের সাথে শিক্ষার মানোন্নয়ন ও উন্নয়নের অন্যতম শর্ত যোগাযোগ সহজিকরনের লক্ষ্যে নিজ উদ্যোগে বিনামূল্যে ১৬৭ জন প্রধান শিক্ষকসহ কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে কর্পোরেট সিম বিতরণ করেন। ইতিমধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অংশ হিসেবে প্রতিটি বিদ্যালয়ে স্বতন্ত্র ই-মেইল আইডি খোলা হয়েছে। এছাড়া নিজ উদ্যোগে, প্রতিটি বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার স্থাপন, ডিজিটাল সুবিধাসহ উন্নত শ্রেণীকক্ষ, অফিস কক্ষ আধুনিকায়ন, দৃষ্টি নন্দন প্রকল্প ও ‘‘বৃক্ষরোপন করবো নিরাপদ নিরাপদ পরিবেশ গড়বো’’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বিদ্যালয় পর্যায়ে বৃক্ষরোপন শুরু করেছেন।

তিনি ২০০৬ সালে পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ি সদরে উপজেলা শিক্ষা অফিসার হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। এর পরে তিনি চাদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলা, কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা, নারায়নগঞ্জের রূপগঞ্জ ও আড়ােইহাজার উপজেলা, সর্বশেষ হবিগঞ্জ জেলার আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় দায়িত্ব পালন করেন। নারায়নগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ উপজেলায় কর্মকালে জেলার শ্রেষ্ঠ উপজেলা শিক্ষা অফিসার নির্বাচিত হওয়ায় সরকার কতৃক ভিয়েতনামে মর্ডাণ স্কুল ম্যানেজমেন্ট প্র্যাকটিস বিষয়ক প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেন। তিনি নরসিংদী জেলার সদর উপজেলার এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। ব্যক্তি জীবনে তিনি বিবাহিত ও দুই কণ্যা সন্তানের জনক।
এ ব্যাপারে বানিয়াচং উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম সরকার জানান, আমি চাকুরীতে যোগদান করার পর থেকে সেবা গ্রহিতাদের সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে আসছি। এ ছাড়া সরকারি নির্দেশনার পাশাপাশি নিজ উদ্যোগে নতুন কিছু করার চেষ্টা করে থাকি। তিনি বর্তমান কর্মস্থলে সার্বিক সহযোগিতার জন্য হবিগঞ্জ-২ আসনের সাংসদ আলহাজ্ব এডভোকেট আব্দুল মজিদ খান ও উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কমিটির চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কাশেম চৌধুরীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *